জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শিক্ষাপ্রতিমন্ত্রী ও রাজবাড়ী-১ আসনের এমপি’র বাণী –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

১৫ই আগস্ট বাঙ্গালী জাতির ইতিহাসে এক কলঙ্কজনক দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে তার পরিবারের প্রায় সকল সদস্যসহ হত্যা করা হয়। এই হত্যাকান্ডের মধ্যে দিয়ে ঘাতকের দল দেশকে মুক্তিযুদ্ধের বিপরীত ধারায় চালিত করতে চেয়েছিল। স¦াধীনতা বিরধী চক্র জাতির পিতাকে হত্যা করে দেশের অসাম্প্রদায়িক চরিত্রকে ধ¦ংস করে। তারা কেবল জাতির পিতাকে হত্যা করেই ক্ষ্যান্ত হয়নি, নিপীড়ন চালিয়েছিল মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির ওপর। সামরিক শাসকেরা বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদেরকে পুরুষ্কৃত করে। ১৫ই আগস্টের এই শোকাবহ ঘটনা বাঙ্গালী জাতিকে নিমজ্জিত করে গভীর অন্ধকারে। মুক্তিকামী দেশবাসি হারায় তাদের অবিসংবাদিত নেতাকে ।
১৫ই আগস্ট ব্যক্তি শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হলেও প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠী তার সংগ্রামী চেতনাকে ধ¦ংস করতে পারেনি। সাময়িকভাবে দেশকে উল্টো দিকে নিয়ে যাওয়ার চেস্টাও সফল হয়নি।
১৯৯৬ সালে স্বাধীনতার নেতৃত্বদানকারী দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে দেশকে আবার মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দিকে ফিরিয়ে নিয়ে যায়। বঙ্গবন্ধুর স্বপনের সোনার বাংলা গড়ার জন্য গ্রহন করে নানা কর্মসূচি। এরপর বিএনপি ক্ষমতায় এসে দেশকে বিপথে চালিত করতে চাইলেও সক্ষম হয়নি।
পুণরায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে দেশের মাটিতে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিচার সম্পন্ন করে। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে মানবতা বিরোধী অপরাধের বিচারও শুরু করে, ইতোমধ্যে কয়েক জনের সাজা কার্যকর হয়েছে।
বর্তমানে জাতির পিতার কন্যা শেখ হাসিনার সরকার দেশকে অগ্রগতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে। দেশে পরিচালিত হচ্ছে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড। বাংলাদেশ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে সমৃদ্ধির দিকে ।
১৫ই আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘাতকদের হাতে শাহাদত বরণ করলেও তিনি বেচে আছেন সব বাঙ্গালীর হৃদয়ের, তার আদর্শ ধ্রুব তারার মত অক্ষয় হয়ে আছে দেশবাসীর মাঝে।

(কাজী কেরামত আলী)
প্রতিমন্ত্রী
কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ
শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

(Visited 84 times, 1 visits today)