রাজবাড়ীতে ভারতীয় হাইকমিশনের উপহার ১০ কম্পিউটার প্যাকেটবন্দি পাঁচ বছর ! –

রুবেলুর রহমান/আতিয়ার রহমান, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

পাঁচ বছর আগে রাজবাড়ী সদর উপজেলার চর জৌকুড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ে ভারতীয় হাইকমিশন থেকে ১০টি কম্পিউটার দেওয়া হয়। তবে আজও কম্পিউটারগুলো প্যাকেটেই রয়ে গেছে।
জানা গেছে, শিক্ষার্থীদের যুগোপযোগী করতে ও কম্পিউটার শিক্ষা বাড়ানোর লক্ষ্যে ভারতীয় হাইকমিশন থেকে দেশের প্রতিটি জেলার একটি করে বিদ্যালয়ে ১০টি কম্পিউটার, ১০টি টেবিল ও ১০টি চেয়ার দেওয়া হয়। ২০১৩ সালের ৮ জুলাই রাজবাড়ীর চর জৌকুড়ী উচ্চ বিদ্যালয় পায় এসব উপকরণ। তবে বিদ্যালয়ে টেবিল-চেয়ারগুলো ব্যবহার করা হলেও কম্পিউটারগুলোর প্যাকেটও খোলা হয়নি। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে সেগুলো রাখা হয়েছে।
বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা জানান, সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়নের চর জৌকুড়ী গ্রামের পদ্মা নদীতীরে ১৯৯৭ সালে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করা হয়। তবে গত বছরের মার্চে বিদ্যালয়টি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। ফলে পাশের এলাকায় বিদ্যালয়টি স্থানান্তর করা হয়।
বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীরা জানায়, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে কম্পিউটারের ভূমিকাই মুখ্য। অথচ অজপাড়াগাঁয়ের এই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য বিনা মূল্যে আসা কম্পিউটারগুলো ফেলে রাখা হয়েছে।
বেশ কয়েকজন অভিভাবক জানান, বিদ্যালয়টির এত কম্পিউটার রয়েছে তা তাঁরা সম্প্রতি লোকমুখে জেনেছেন। কিন্তু সেগুলো ব্যবহার করা হচ্ছে না। অথচ তাঁরা তাঁদের ছেলে-মেয়েদের অন্যত্র অথবা প্রশিক্ষণকেন্দ্রে টাকা ব্যয় করে কম্পিউটার শেখাচ্ছেন। তাঁরা বলেন, এত দিন পড়ে থাকায় কম্পিউটারগুলো নষ্ট হয়ে গেছে কি না, খতিয়ে দেখা প্রয়োজন। তা ছাড়া কম্পিউটার আপডেট হচ্ছে প্রতিনিয়ত। পাঁচ বছরের পুরনো কম্পিউটারগুলো এখন ওল্ড মডেল হয়ে যাওয়ার কথা।
সাবেক জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সৈয়দ সিদ্দিকুর রহমান জানান, ওই বিদ্যালয়ে ভারতীয় হাইকমিশন থেকে কম্পিউটার পাওয়ার বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না।
বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক মো. মঈনুল ইসলাম বলেন, নদীতীরবর্তী বিদ্যালয় হওয়ায় ভাঙন আতঙ্কে ও পর্যাপ্ত নিরাপত্তাব্যবস্থা না থাকায় কম্পিউটারগুলো বাক্সবন্দি অবস্থায় তাঁর বাড়িতে রেখেছেন। ব্যবস্থাপনা কমিটি ও শিক্ষা কর্মকর্তাদের জানিয়েই তিনি এটি করেছেন। তবে সম্প্রতি একটি কম্পিউটার বিদ্যালয়ের অফিসের কাজে ব্যবহার করছেন।

(Visited 221 times, 1 visits today)