আওয়ামীলীগ মিথ্যাচার করে না, উন্নয়ন করে – রাজবাড়ীতে শিক্ষাপ্রতিমন্ত্রী –

রুবেলুর,ইমরান,আতিয়ার, টুটুল, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

 

রাজবাড়ী সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্দ্যোগ ও বরাট ইউনিয়নর আওয়ামীলীগে আয়োজনে বরাটে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে কেন্দ্র কমিটি (ওর্য়াড) গঠন ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার বিকালে ভবদিয়া আলহাজ আব্দুল করিম উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে এ কেন্দ্র কমিটি (ওর্য়াড) গঠন ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে বরাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আরশাদ আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ও রাজবাড়ী ১ আসনের এমপি কাজী কেরামত আলী এমপি।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি হেদায়েত আলী সোহরাব, যুগ্ম-সম্পাদক এ্যাড ঃ রফিকলি ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশানা সম্পাদক এ্যাডঃ সফিকুল হোসেন, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি রমজান আলী খান, বরাট ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মেসের আলী খান, ইউপি আওয়ামীলীগের সদস্য আসজাদ হোসেন আরজু প্রমূখ।
নির্বাচনী কেন্দ্র কমিটি ও মতবিনিময় সভার সঞ্চালনা করেন, বরাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ ফরিদ উদ্দিন শেখ।
কাজী কেরামত আলী বলেন, আওয়ামীলীগ মিথ্যাচার করে না, উন্নয়ন করে। রাস্তা-ঘাট, চিকিৎসা, স্বাস্থ্য, শিক্ষাসহ সকল ক্ষেত্রে উন্নয়ন করেছে। তবে মাদকের সাথে কোন আপোষ নাই। যারা মাদক বিক্রি, সেবন ও এসবের সহযোগীতা করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আগামী নির্বাচনের জন্য শেখ হাসিনা যাকেই নৌকা প্রতীক দেবে নৌকা জেতাতে তার পক্ষে কাজ করবেন। তিনি নারীর ক্ষমতায়নেউ ভূমিকা রাখছেন। সমাজ ব্যবস্থায় নারীরা এখন অনেক এগিয়ে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, জেলার বর্তমান যে বিদ্যমান বিদ্যুৎ সমস্যা আছে। তা চলতি মাসের ৩১ তারেিখর মধ্যে সমাধান করা হবে। ৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ফরিদপুর-রাজবাড়ীর মধ্যে যে নতুন বিদ্যুৎ লাইন নির্মান করা হয়েছে, সেটি চালু হলে আর সমস্যা থাকবে না। রাজবাড়ীর শহর রক্ষা বাঁধের কিছু অংশের কাজ শুরু হয়েছে। আগামীতে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসলে রাজবাড়ীর অন্তরমোড় থেকে ধাওয়াপাড়া পর্যন্ত নদী শাসনের জন্য বাঁধ নির্মান করা হবে। এ উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামীলীগকে বিজয়ী করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, শিক্ষার মান বাড়াতে উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষায় এবার কৌশল অবলম্বন করায় দেশে পাশের হার কমেছে। প্রশ্নপত্র যেন ফাঁস না হয়, সে জন্য নেওয়া হয়েছিল নানা ক্শেল। প্রশ্নপত্র ফাঁস ও নকল মুক্ত পরীক্ষার পরিবেশ রাখতে এবার ৫ সেট প্রশ্ন করা হয়েছে। পরীক্ষা কেন্দ্রে ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের ডুকানো হয়েছে এবং ২৫ মিনিট আগে কেন্দ্রে দেওয়া হয়েছে প্রশ্ন। যারে কারণে এবার স্বচছ পরীক্ষা হয়েছে। স্বচ্ছ পরীক্ষার মাধ্যমে পাশের হার কমলেও ভাল।

(Visited 69 times, 1 visits today)