আদালতে মামলা, রাজবাড়ীতে সহকারী প্রধান শিক্ষক নিয়োগের ঘটনায় ৮ লাখ টাকা উৎকোচ নেয়ার অভিযোগ –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

রাজবাড়ী সদর উপজেলার বরাট ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী আলহাজ¦ আব্দুল করিম উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে অস্বচ্ছতার ও আট লাখ টাকা নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই অভিযোগে রাজবাড়ীর সদর সহকারী জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালত আগামী ২৯ জুলাই নিয়োগ সংশ্লিষ্ঠদের আদালতে উপস্থিত হয়ে তাদের বক্তব্য প্রদানের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।
জানাগেছে, ১৯৬২ সালে ওই বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত। যা এখন পর্যন্ত সরকারী অনুদানে পরিচালিত হচ্ছে। গত ২৮ এপ্রিল ওই বিদ্যালয়ের একজন সহকারী প্রধান শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। ওই পদে জেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ১৪ জন শিক্ষক আবেদন করেন। ওই সব প্রার্থীদের গত ২৪ জুন ছিলো নিয়োগ পরীক্ষা। ওই পরীক্ষার অংশ গ্রহণকারীদের মধ্যে রয়েছেন, জেলার কালুখালী উপজেলার পাটকাবাড়ী গ্রামের ইউসুফ আলী মন্ডল। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ হাতে হাতে ওই নিয়োগ পরীক্ষার পত্র পৌছেও দেয়। প্রার্থীদের নামের পাশে নিজ স্বাক্ষর করে পত্রটি নেয়ার কথা ছিলো। তবে ইউসুফ আলী মন্ডল গত ১৫ জুন নিজেরটা এবং পক্ষে স্বাক্ষর করে অপর দুই প্রার্থী আবু সাঈদ মোল্লা ও মোঃ আব্দুর রশিদ মোল্লার পত্র গ্রহণ করে। তবে অজ্ঞাত কারণে ওই পরীক্ষা কর্তৃপক্ষ স্থগিত করে। সেই সাথে গত ৪ জুলাই পরবর্তী নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ ঘোষনা করে। ওই তারিখে উপস্থিত হবার পত্র অন্য ১২ জন প্রার্থী পেলেও জেলা সদরের আগমাড়াই গ্রামের আসাদুজ্জামান সিদ্দিকী এবং চরবারকিপাড়া গ্রামের মোঃ মোস্তফা কামাল পাননি বলে দাবী করে গত ৩ জুলাই নিয়োগ বোর্ডের কর্মকর্তাদের উকিল নোটিশ পাঠানোর পাশাপাশি রাজবাড়ীর সদর সহকারী জজ আদালতে একটি মামলা দায়েরও করা হয়। আদালত আগামী ২৯ জুলাই নিয়োগ সংশ্লিষ্ঠদের আদালতে উপস্থিত হয়ে তাদের বক্তব্য প্রদানের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।
ওই মামলার বাদী আসাদুজ্জামান সিদ্দিকী এবং মোঃ মোস্তফা কামাল জানান, মূলত প্রার্থী ইউসুফ আলী মন্ডলের কাছ ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও পরিচালনা কমিটির সভাপতি আট লাখ টাকা উৎকোচ হিসেবে গ্রহণ করেছেন। যে কারণে তারা চাইছে যে করেই হোক তারা ইউসুফ আলী মন্ডলকে নিয়োগ পাইয়ে দেবে। বিষয়টি এলাকাবাসী জানতে পেরে মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ডিজি’র প্রতিনিধি ও রাজবাড়ী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককের কাছে স্মারকলিপিও প্রদান করেছে।
মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ডিজি’র প্রতিনিধি ও রাজবাড়ী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বেলা রানী সরকার জানান, তিনি ওই স্মারকলিপিটি পেয়েছেন। তবে গত ৪ জুলাই সকালে তারা দুইপ্রার্থীর উকিল নোটিশ পেয়ে সে দিন পরীক্ষাও স্থগিত করেন এবং পরবর্তী নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ আগামী ১৮ জুলাইও নির্ধারণ করেছেন। তিনি বলেন, নিয়ম মেনে সকল প্রার্থীকেই নতুন করে নিয়োগ পরীক্ষার পত্র প্রদান করা হয়েছে। সর্বচ্চ স্বচ্ছতার মধ্য দিয়ে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে এবং নিয়োগ বোর্ডে প্রথমস্থান অধিকারকারীকে নিয়োগ দেবার জন্য তারা সুপারিশও করবেন।
ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কবির উদ্দিন বিশ^াস জানান, কোন প্রার্থীর কাছ থেকে উৎকোচ নেয়া হয়নি। নিয়োগ বোর্ড যে সিদ্ধান্ত নেবে সে সিদ্ধান্তই বাস্তবায়ন করা হবে।

(Visited 229 times, 1 visits today)