অভিমান করে গোয়ালন্দের ছোটভাকলায় ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীর আত্নহত্যা –

কাজী আনোয়ারুল ইসলাম টুটুল, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

বুধবার সকাল ১১ টায় জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের চরবরাট গ্রামের ছালাম মোল্লার মেয়ে ষষ্ঠ শ্রেনী পড়ুয়া ছাত্রী ববিতা (১১) বড় বোন পপির (১৫) সাথে পিঠা বানানোর জন্য পানি আনাকে কেন্দ্র করে অভিমান করে। এরপর ছালাম মোল্লার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা অপর মেয়ে জামাই বাড়ীতে বেড়াতে যায়। এরই ফাঁকে ববিতা ছাপরা ঘড়ের আড়ার সাথে গলায় ওড়না ঝুলিয়ে ফাঁস নেয় বলে জানান গোয়ালন্দ থানার এসআই মিলন। অপরদিকে তার নিকটতম আত্মীয় বক্কার একই তথ্য দেন। তিনি আরও বলেন, খবর পেয়ে ছুটে যাই এবং ববিতাকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে উড়াকান্দা নামক স্থানে সে মারা যায়।
পরে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। বুধবার সকাল ১১ টায় গোয়ালন্দ থানাধীন বরাট ইউনিয়নের চরবরাট গ্রামের ছালাম মোল্লার মেয়ে ৬ষ্ট শ্রেনী পড়ুয়া ছাত্রী ববিতা(১১) বড় বোন পপির(১৫) সাথে পিঠা বানানোর জন্য পানি আনাকে কেন্দ্র করে অভিমান করে। এরপর ছালাম মোল্লার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা অপর মেয়ে জামাই বাড়ীতে বেড়াতে যায়। এরই ফাঁকে ববিতা ছাপরা ঘড়ের আড়ার সাথে গলায় ওড়না ঝুলিয়ে ফাঁস নেয় বলে জানান গোয়ালন্দ থানার এসআই মিলন। অপরদিকে তার নিকটতম আত্মীয় বক্কার একই তথ্য দেন। তিনি আরও বলেন, খবর পেয়ে ছুটে যাই এবং ববিতাকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে উড়াকান্দা নামক স্থানে সে মারা যায়।
পরে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।

(Visited 166 times, 1 visits today)