রাজবাড়ীর শহীদওহাবপুর থেকে ভিজিএফ-এর ৩ হাজার ৭শত কেজি চাল জব্দ –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

রাজবাড়ী সদর উপজেলার শহীদওহাবপুর ইউনিয়নের মমিন বাজার এলাকার একটি হলুদের মিল থেকে ৩ হাজার ৭শত কেজি ভিজিএফ-এর চাল জব্দ করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজবাড়ী সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওই চাল জব্দ করেন। যদিও ঈদুল ফিতরের আগে এ চাল ওই ইউনিয়নের ৩ শত ৭০ টি হতদরিদ্র পরিবারের ঘরে যাবার কথা ছিলো।
ওই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও রাজবাড়ী জেলা পরিষদের সদস্য নুর মোহাম্মদ ভুইয়া জানান, গতকাল বিকালে শহীদওহাবপুর ইউনিয়নের মমিন বাজার এলাকার জনৈক মনো মিয়ার হলুদের মিলের একটি ঘরের মধ্যে খাদ্য অধিদপ্তরের সিলযুক্ত খালি বস্তা পরে থাকতে দেখা যায়। সেই সাথে একই ঘরের মধ্যে স্তুপ আকারে চাল ফেলে রাখতেও তারা দেখেন। বিষয়টি দেখে স্থানীয়দের সন্দেহ হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি জানানো হয়।
খবর পেয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইদুজ্জামান খান ঘটনাস্থলে যান এবং ৩ হাজার ৭শত কেজি চাল জব্দ করা। তিনি আরো বলেন, ঈদ উপলক্ষে গতকাল এই ইউনিয়নের এক হাজার ৪শত ৪২টি হত দরিদ্র পরিবারের মধ্যে ভিজিএফ-এর চাল বিতরণ করার কথা ছিলো। তাকে ইউপি চেয়ারম্যান তোরাপ আলী মন্ডল জানিয়েছেন, তিনি সব চাল বিতরণ করে দিয়েছেন। তাহলে এই হলুদ মিলের ঘরে এই চাল আসলে কিভাবে, সে কথার সদোত্তর চেয়ারম্যান দিতে পারেননি। যে কারণে ওই চাল জব্দ করে রাজবাড়ী জেলা পরিষদের সদস্য নুর মোহাম্মদ ভুইয়া এবং একই ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড সদস্য গোলাম হোসেন ফরিদের জিম্মায় রাখা হয়। তিনি আরো বলেন, এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
শহীদওহাবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহিন খান জানান, ইউপি চেয়ারম্যান তোরাপ আলী মন্ডল এক হাজার ৪শত ৪২টি পরিবারের মধ্যে ৩৭০টি হতদরিদ্র পরিবারকে বঞ্চিত করে ওই চাল গোপন বিক্রি করে দিয়েছে। এ ঘটনায় সরকারের ভাল উদ্যোগ প্রশ্নবৃদ্ধ হলো। তাই এ ব্যাপারে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন।
ইউপি চেয়ারম্যান তোরাপ আলী মন্ডল জানান, তিনি তার ইউনিয়নে বরাদ্দ আসা এক হাজার ৪শত ৪২টি হত দরিদ্র পরিবারের মধ্যে গতকাল দিন ভর বিতরণ করেছেন। জব্দ হওয়া এই চাল কারা কিভাবে এখানে এনেছে তা তিনি জানেন না।

(Visited 1,190 times, 1 visits today)