বালিয়াকান্দিতে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ ও গর্ভপাতের অভিযোগ, ছেলে গ্রেপ্তার, পালিয়েছে মা –

রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

 

এক নবম শ্রেণীর মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষন ও জোড়পুর্বক গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের বাকসীডাঙ্গী গ্রামের হোসেন আলী শেখ নামে এক যুবককে থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। সে জামালপুর ইউনিয়নের বাকসীডাঙ্গী গ্রামের শাহজাহান শেখের ছেলে। তবে অভিযুক্তের মা ডালিম বেগমকে পুলিশ গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রেখেছে। এ ব্যাপারে ওই ছাত্রী বাদী হয়ে গত মঙ্গলবার রাতে বালিয়াকান্দি থানায় মামলা দায়ের করেছে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বালিয়াকান্দি থানার এস,আই কায়সার হামিদ জানান, বিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও হোসেন শেখ ওই ছাত্রীকে মাদ্রাসায় যাতায়াতের পথে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। ওই ছাত্রী রাজী না হওয়ায় গত ২৬ জানুয়ারী রাতে তাকে জনৈক এক ব্যাক্তির গোয়াল ঘরে নিয়ে একাধিকবার ধর্ষন করে। এ ঘটনার পর সাম্প্রতিক সময়ে ওই ছাত্রী অন্তসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এ ঘটনায় বিচলিত ওই ছাত্রী বিষয়টি হোসেন শেখকে জানায়। ফলে হোসেন শেখ ও তার মা ডালিম বেগম কৌসলে গত ২ মে ওই ছাত্রীকে বালিয়াকান্দি উপজেলা শহরের অপরিচিত এক বাড়িতে নিয়ে যায়। ওই বাড়িতে নিয়ে তাকে মা-ছেলে মিলে ওষুধ খাওয়ায়। এতে ওই ছাত্রী অচেতন হয়ে পরে। সে সুযোগে তারা তার গর্ভপাত ঘটায়। ওই ছাত্রীর জ্ঞান ফেরার পর বুঝতে পারে তাকে গর্ভপাত ঘটানো হয়েছে। হোসেন শেখ ও তার মা ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার ভয়ে ওই ছাত্রীকে তার বাড়ীতে না নিয়ে ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার একটি বাড়ীতে ব্যাটারী চালিত অটোবাইক যোগে রেখে আসে। ওই ছাত্রী কিছুটা সুস্থ হয়ে গত মঙ্গলবার বাড়িতে ফিরে আসে এবং রাতেই বালিয়াকান্দি থানায় মামলা দায়ের করে। মামলা দায়েরের পর পরই হোসেন শেখকে গ্রেপ্তার করা হয়। হোসেন শেখ পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে প্রাথমিক ভাবে তার অপকর্মের কথা স্বীকার করেছে। ওই ছাত্রীকে গতকাল বুধবার রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ডাক্তারী পরীক্ষা করানো হয়েছে। সেই সাথে হোসেনের মা ডালিম বেগমকে গ্রেপ্তার করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

(Visited 125 times, 1 visits today)