রাজবাড়ীতে পঞ্চভাস্করের ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে র‌্যালী –

রুবেলুর,ইমরান, আতিয়ার,টুটুল, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

 

“ফিরে চল, ফিরে চল, ফিরে চল মাটির টানে” এই প্রতিপাদ্যকে বুধে ধারন করে রাজবাড়ীতে সঙ্গীত জগতের পাঁচ গীতি কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কাজী নজরুল ইসলাম, দ্বিজেন্দ্রলাল, অতুলপ্রসাদ ও রজনীকান্তকে নিয়ে নামকরণ করা পঞ্চভাস্করের ২৫ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষে র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে পঞ্চভাস্করের আয়োজনে রাজবাড়ী জেলা শিল্পকলা একাডেমী থেকে শহরে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয় । এ সময় র‌্যালীটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে জেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পূষ্প্যমাল্যে অর্পণ করেন সংগঠনটির সদস্যরা।
পূষ্প্যমাল্যে অর্পণ শেষে শহীদদের স্বরণে এক মিনিট নিরাবতা পালন করেন।
এতে উপস্থিত ছিলেন, পঞ্চভাস্করের প্রতিষ্ঠাতা সাধারন সম্পাদক রশীদ আল হেলাল, উৎসব উদযাপনের সদস্য সচিব রশীদ আল কামাল, যুগ্ম সম্পাদক রশীদ আল মারুফ প্রমূখ।
২৫ বছর পূর্তি উৎসবের দ্বিতীয় পর্বে বিকালে রয়েছে উদ্বোধন, গুনীজন সংবর্ধনা, প্রদক প্রদান ও আলোচনা পর্ব। এ সময় বিশিষ্ট শিল্পী ও গীতিকবি নির্মল চন্দ্র মজুমদারকে গুনীজন সংবর্ধনা প্রদান এবং পঞ্চভাস্কর পদক প্রদান করা হবে বিশিষ্ট রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী মিতা হককে।
সগন্ধ্যায় সংস্কুতিক অনুষ্ঠানে থাকছে, একক ও দলীয় সঙ্গীত, পাঠ/আবৃতি এবং নৃত্য।
২৫ বছর পূর্তি উৎসবের অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, গবেষক ও পঞ্চভাস্করের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য প্রফেসর ড. ফকীর আব্দুর রশীদ এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন, শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী এমপি।
উৎসবের উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুস।
উল্লেখ্য, হাজার বছরের সকল বাংলা গানকে বুকে ধারন করে বাংলা গানের প্রচার, প্রসার, চর্চা ও লালনের গানের চর্চা এবং বাঙালী সংস্কৃতিক মূল ধারাকে এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে ১৯৯৩ সালে পঞ্চভাস্কর নামে সংগঠনটির জন্ম হয়। ওই বছরের শুরুতে রাজবাড়ীর গুণী সংস্কৃতি সেবী ও শিক্ষাবিদ ফিরোজা সুলতানা রশীদ এর প্রথম উদ্দ্যোক্তা স্বপ্নদ্রষ্টা। এরপর একই বছরের ১০ অক্টোবর ঢাকাতে রশীদ আল হেলাল সংগঠনটির সাংগঠিক রুপদান ও প্রতিষ্ঠা করেন। পরে কেন্দ্রীয় ভাবে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাথে সদস্য হিসাবে যুক্ত হয় পঞ্চভাস্কর। বর্তমানে সংগঠনটির শাখা গঠিত হয়েছে রাজবাড়ী, ফরিদপুর, পাবনা ও টাঙ্গাইল জেলায়। সংগঠনটির মাধ্যমে অনুষ্ঠান ছাড়াও মহড়া, কর্মশালা, সেমিনার, প্রশিক্ষণ, পত্রিকা প্রকাশ,বন্যার্তদের সাহায্যে, রক্তদান কর্মসূচী এবং শীতার্দের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ, অনাথ ও দুস্থ শিল্পী-শিক্ষার্থীদের সাহায্যে এবং অনুদান প্রদানের কাজ করেন। সংগঠনটির কার্যক্রম রাজবাড়ী থেকে শুরু হওয়াতে ২৫ বছর পূর্তি উদযাপনের আয়োজন রাজবাড়ীতে করা হয়েছে।

(Visited 30 times, 1 visits today)