দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ-রুটে ঘন কুয়াশায় ঝুঁকি নিয়ে চলছে লঞ্চ ও নৌকা –

শফিকুল ইসলাম শামীম, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

 

ঘন কুয়াশার কারণে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে সাড়ে ৬ঘণ্টা পর ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়। তবে, ঝুঁকি নিয়ে ঘন কুযাশার মধ্যে ইঞ্জিন চালিত নৌকা ও লঞ্চ চলাচল করে। এদিকে টানা সাড়ে ৬ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় দৌলতদিয়া ঘাটে প্রায় ৬শতাধিক বিভিন্ন প্রকার যানবাহন ফেরি পারের অপেক্ষায় রয়েছে।
সোমবার সকালে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটে দিয়ে দেখা যায়, ঘন কুয়াশায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে দুর্ঘটনা এড়াতে রাত ৩টা থেকে বাংলাদেশ অভ্যান্তরীন নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) ফেরি চলাচল বন্ধ করেন। কিন্ত ইঞ্জিন চালিত নৌকা ও লঞ্চ চলাচল করতে দেখা যায়। ইঞ্জিন চালিত নৌকায় সাধারন যাত্রী সহ মটরসাইকেলও পারাপার করতে দেখা যায়।
ঢাকাগামী সজীব শিকদার জানান, রাত ৩টায় ঘন কুয়াশার কারণে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। ঢাকায় জরুরী যেতে হবে যে কারণে ঝুঁকি ভেবেও ইঞ্জিন চালিত নৌকায় যেতে হচ্ছে।
কামরুল ইসলাম মামুন বলেন, ঘন কুয়াশায় ফেরি বন্ধ থাকলেও লঞ্চ চলাচল করতে দেখা যাচ্ছে। যে কারণে লঞ্চে যাওয়ার চেষ্টা করছি।
ঢাকা থেকে ফরিদপুরগামী কমির প্রামানিক নামে এক যাত্রী বলেন, সকাল ৬টার দিকে পাটুরিয়া ঘাট থেকে লঞ্চে উঠেছি। ২ঘণ্টা লঞ্চটি নদীর মধ্যে এলোমেলো ঘুরেছে। ২ঘণ্টা পর অবশেষে দৌলতদিয়া ঘাটে। তিনি বলেন, যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারতো।
লঞ্চ ঘাটের ম্যানেজার আনোয়ার হোসেন মিলন বলেন, বাংলাদেশ অভ্যান্তরীন নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) এর নির্দেশে এই নৌরুটে লঞ্চ চলাচল করে। ঘন কুয়াশার কারণে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিলে আমরা বন্ধ রাখি। আবার চলাচলের অনুমতি দিলে শুরু করি।
বাংলাদেশ অভ্যান্তরীন নৌপরিবহস কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) আরিচা বন্দরের পোর্ট অফিসার মোঃ সেলিম রেজা জানান, ঘন কুয়াশার কারণে দুর্ঘটনা এড়াতে লঞ্চ বন্ধ রাখি। অনেক সময় লঞ্চ কর্তৃপক্ষ নিজের ইচ্ছায় লঞ্চ চলাচল করে। তবে, আমাদের নজরে আসলে আমরা বন্ধ রাখি।
ঢাকাগামী ট্রাক চালক ইদ্রিস আলী বলেন, রাত ১টার সময় দৌলতদিয়া ঘাটে এসেছি। ফেরি বন্ধ থাকার কারণে এখনও দৌলতদিয়া ঘাটে পরে রয়েছি। জানি না কখন ফেরি ছাড়বে।
সাকুরা পরিবহনের যাত্রী সুমিতা বলেন, সকালে অফিস করবো ভেবে রাতে রওয়ানা হয়েছি। কিন্ত ঘন কুয়াশার কারণে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটেই রাত শেষ হয়ে গেল। এখন সকাল ৮টা বাজে। তবুও কুয়াশার কারণে ফেরি বন্ধ রয়েছে। তিনি বলেন, রাতে আকটা থাকায় নানা প্রকার সমস্যায় রাত কাঁটাতে হয়েছে গাড়ীর মধ্যেই। তিনি বলেন, টানা ৭/৮ ঘণ্টা ফেরি পারের অপেক্ষায় থাকার কারণে খোলা হোটেলের অস্বাস্থ্যকর খাবার দ্বিগুন মূল্যে খেতে হচ্ছে। শীতের মধ্যে চরম কষ্ট করতে হচ্ছে।
বাংলাদেশ অভ্যান্তরীন নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) এর দৌলতদিয়া ঘাট শাখার সহ ব্যবস্থাপক মোঃ আবু আব্দুল্লাহ জানান, ঘন কুয়াশায় রাত ৩টা থেকে ফেরি বন্ধ করা হয়েছে। সকাল সাড়ে ৯টায় কুয়াশা কমে গেলে পুনরায় ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়। তিনি আরো বলেন, দীর্ঘ টানা সাড়ে ৬ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় দৌলতদিয়া ঘাটে কিছু গাড়ী ফেরি পারের অপেক্ষায় রয়েছে।

(Visited 26 times, 1 visits today)