জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক জাসাস সভাপতি ও পাঁচুরিয়ার বাসিন্দা বাবু’র ইন্তেকাল –

ইমরান হোসেন মনিম, রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

রাজবাড়ীর পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের ব্রাম্মনদিয়া গ্রামের মৃত মোঃ ছামাদ মল্লিকের ছেলে সাবেক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংগঠনের (জাসাস) সভাপতি আবুল খায়ের বাবু ইন্তেকাল করেছেন।
আবুল খায়ের বাবু-জগন্নাথ বিশ্ব বিদ্যালয় ব্যবসায় শাখা থেকে ব্যবস্থাপনা বিষয়ে ¯œাতক ও ¯œাতোকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন।
ছাত্র জীবন থেকেই তিনি রাজনীতিতে জরিয়ে পড়েন। ঢাকার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা পতিষ্ঠান সিটি কলেজ থেকে ইন্টার মিডিয়েট পাশ করে জগন্নাথ বিশ্ব বিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর থেকেই তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি’র) অংগ ও সহযোগী সংগঠন জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংগঠনের (জাসাসে’র) রাজনীতির মাধ্যমে ঢাকায় বেশ পরিচিতি লাভ করেন।
গত-২০০১ জাতীয় নির্বাচনে রাজবাড়ীতে নির্বাচনী জনসভায়-প্রচারনায় বিএপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সাথে সফর সঙ্গী হিসেবে শহীদ খুশি রেলওয়ে মাঠে আসেন। সে সময় বিএনপির মনোনিত প্রার্থী সাবেক এমপি আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়মের পক্ষে জনসভায় বক্তৃতা দেন ও ভোট চান ধানের শীষ প্রতীকে। তবে তিনি সবসময় ছিলেন নিস্বার্থ ও নির্লোভী ।যার কারনে রাজনৈতিক সব মহলের সাথে তার যথেষ্ট হৃর্দ্দতা। তবে পরপর তিনবার ষ্ট্রোক করে তিনি শারিরিক ভাবে বিপর্যস্থ হয়ে পরেন। গত দুই বছর তিনি একেবারেই চলাফেরা করতে পারছিলেন না শারিরিক অসুস্থতার কারনে।
গত তিন দিন ধরে আবুল খায়ের বাবু মারাত্বক ভাবে অসুস্থ হয়ে বিছানা থেকে উঠতে পারেননি খাওয়া দাওয়া ও বন্ধ হয়ে যায়। অবশেষে গতকাল রবিবার পাঁচটার সময় নিজ বাড়ীতে না ফেরার দেশে চলে যান। মৃত্যুর সময় তার বযস হয়েছিল ৫২ বছর।তিনি তার বৃদ্ধা মা ,ছোট দুই ভাই ,স্ত্রী ,ছোট দুই সন্তান-ছেলে আশিক মাহমুদ বাপ্পি ,ও মেয়ে ইশরাত জাহান নাইসকে রেখে যান।
সোমবার সকাল ৯টায় তার নিজ বাড়ীতে প্রথম জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হয় ও পরে তার আতœীয় স্বজন আসার পরে ব্রাম্মনদিয়া সাড়েং বাড়ী ঈদ গাঁ ময়দানে দ্বিতীয় জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম জানাজার নামাজ পরান সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা সৈয়দ আহম্মেদ ও দ্বিতীয় জানাযার নামাজ পরান আমিনুল ইসলাম খান। এসময় রাজবাড়ী জেলা জাসাসের সভাপতি শেখ আঃ রউফ হিটু ও সাধারন সম্পাদক কাজী মিজানুর রহমান পলাশ, প্রতিবেশি প্রিন্সিপাল আব্দুল কাদের ,মরডাঙ্গা মাদ্রাসার শিক্ষক মোঃ আব্দুল কাদের, হারুনুর রশিদসহ আতœীয় স্বজন ও প্রতিবেশিরা উপস্থিত ছিলেন।

(Visited 385 times, 1 visits today)