আগামীকাল শিল্পী রশীদ চৌধুরীর মৃত্যু দিবস-

শহিদুল ইসলাম,রাজবাড়ী বার্তা ডট কম :

 

আগামীকাল ১২ ডিসেম্বর খ্যাতিমান শিল্পী রশীদ চৌধুরীর ৩১ তম মৃত্যুবার্ষিকী। তিনি ১৯৩২ সালের এই দিনে রাজবাড়ী জেলার কালুখালী উপজেলার হারোয়া গ্রামের সম্ভ্রান্ত জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহন করেন ।
মা-বাবা আদর করে এ শিল্পীর নাম রেখেছিল কনক । কনকের জন্মস্থান হারোয়া ছিল ¯্রােতস্বিনী পদ্মানদীর পারে । তাইতো শৈশব থেকেই শিল্পী স্ব চক্ষে দেখেছে পদ্মার বিশালতা আর ভাঙা গড়া । দেখেছে রুপালী বালুকার সুবিস্তৃত প্রান্তর , সবুজের সমারহ ,সরসে ফুলের নাচন । হয়তো এসবের সাথে মিশেই হৃদয়ে গড়ে তুলেছিল এত আয়োজন।
গ্রামের পাঠশালায় শিল্পী রশীদ চৌধুরীর শিক্ষা জীবন শুরু । পরে রতনদিয়া রজনীকান্ত উচ্চ বিদ্যালয় ও বেলগাছী আলীমুজ্জামান উচ্চ বিদ্যালয় থেকে নিন্ম মাধ্যমিক স্তর শেষ করে কোলকাতার পার্ক সার্কাস হাইস্কুল থেকে প্রবেশিকা পরীক্ষায় অংশ নেয় । এরপর ঢাকা আর্ট কলেজে ভর্তি হন । তিনি এ কলেজ থেকে ১৯৫৪ সালে প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হয়ে শিল্পী হিসেবে পরিচিতি পান ।
এরপর ভাস্কর্য শেখার জন্য তিনি স্পেন সরকারের বৃত্তি নিয়ে ১৯৫৬ সালে মাদ্রিদ চলে যান । দেশে ফিরে ১৯৬০ সালে তিনি ফরাসী সরকারের বৃত্তি নিয়ে শিল্পীদের স্বপ্নপুরী প্যারীস যান । প্যারীসে দীর্ঘ ৪ বছর তিনি ফ্রেসকো, ভাস্কর্য ও ট্যাপিস্ট্রি (বুনন শিল্প) চর্চা করেন ।
শিল্পী রশীদ চৌধুরী চট্টগ্রাম বিশ্ব বিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা। তার রংতুলিতে ধন্য প্যারিসের মিউজিয়াম অব মর্ডান আর্টস,চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মিউজিয়াম,জাতীসংঘের সেক্রেটারী জেনারেল ভবন,অট্রেলিয়া,ভারত ও বার্মার প্রধান মন্ত্রীর ভবন,বাংলাদেশ,ভারত ও মিশরের প্রধান মন্ত্রীর ভবন সহ বহু স্বনাম ধন্য প্রতিষ্ঠান।
তার একক চিত্র প্রদর্শিত হয়েছে বাংলাদেশ,ভারত,পাকিস্থান, জাপান,স্পেন,ফ্রান্স,যুক্তরাষ্ট্র,যুক্তরাজ্য ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশসমুহে।
সারাজীবন রং আর তুলি নিয়ে ব্যস্ত মানুষটির জীবনের রং তুলি শেষ হয়েছে সেদিকে খেয়াল নেই শিল্পীর। তাইতো ১৯৮৬
সালের ১২ ডিসেম্বর জীবনের রং তুলি মুছে পরপারে চলে গেলেন গুনি শিল্পী রশীদ চৌধুরী । মৃত্যু দিবসে তার আত্মার শান্তি কামনা করি।

 

(Visited 56 times, 1 visits today)